বাবা মায়ের নিষেধের কারণে রোযা না রাখলে তার হুকুম কি?

বাবা মায়ের নিষেধের কারণে রোযা না রাখলে তার হুকুম কি
বাবা মায়ের নিষেধের কারণে রোযা না রাখলে তার হুকুম কি

রমযানের রোযা রাখার পর কোন শরয়ী কারণ ছাড়া ভেঙ্গে ফেললে কাযা কাফফারা দুটোই আদায় করা জরুরি। আর যদি রমযানের কোনো রোযা একেবারে নাই রাখে তাহলে শুধু ঐ রোযার কাযা করলেই হবে। তবে স্বরণ রাখতে হবে, শরয়ী কোনো কারণ ছাড়া রমযানের রোযা না রাখা অনেক বড় গুনাহ।

আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ ও আলী রা. থেকে বর্ণিত আছে, যে ব্যক্তি অসুস্থতা বা সফর ছাড়া ইচ্ছাকৃত রমযানের একটি রোযা ছেড়ে দিল সে আজীবন রোযা রাখলেও এ রোযার হক আদায় হবে না। -মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস ৯৮৯৩, ১২৭১১

যদি বাবা মায়ের নিষেধের কারণে রোযা না রাখে, সেক্ষেত্রে ছেলে বড় হওয়ার পর তার প্রবল ধারণা অনুযায়ী সে রোযার কাযা কাফফারা আদায় করবে। এবং পাশাপাশি আল্লাহ্‌র কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করবে।

হাশিয়াতুশ শিলবী ১/৪৬৮, রদ্দুল মুহতার ২/৩৮০, হাশিয়াতুত তহতাবী আলাল মারাকী ২৪৩