যাকাতের বিধান কি? যাকাত কেন দিবেন?

যাকাতের বিধান কি?
যাকাতের বিধান কি?

যাকাত এর আভিধানিক অর্থঃ– পবিত্রতা বা বৃদ্ধি পাওয়া। পারিভাষিক অর্থঃ– বছরে একবার নিত্যপ্রয়োজনীয় সম্পদ ছাড়া অন্য সম্পদ থেকে একটি নির্দিষ্ট অংশ আল্লাহর সন্তুষ্টির লক্ষ্যে শরিয়ত নির্ধারিত ব্যাক্তিদের দান করা।

যাকাতের গুরুত্বঃ– ইসলামের প্রধান পাচটি স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম একটি যাকাত। পবিত্র কোরআন মাজীদে আল্লাহ পাক বত্রিশ স্থানে যাকাতের কথা উল্লেখ করেছেন। তন্মেধ্যে আটাশ জায়গায় নামাজের পরেই যাকাতের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। পবিত্র কোরআন মাজীদ থেকে জানা যায়, প্রাচীনকাল হতে প্রত্যেক নবীর উম্মতের প্রতিই সমানভাবে নামাজ ও যাকাত আদায় করার কঠোর নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। মুলত ইসলামে নামায ও যাকাতের মধ্যে পার্থক্য করার অবকাশ নেই। এতে যাকাত আদায়ের গুরুত্ব নামাজ আদায়ের পরেই।

হযরত ইবনে যায়িদ (রা) বলেছেন, নামাজ ও যাকাত একসাথে ফরয করা হয়েছে, এ দু’টির মাঝে কোন পার্থক্য করা হয়নি। হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা) ইরশাদ করেছেন, তোমাদের একসাথে নামায ও যাকাত আদায় করার ব্যাপারে নির্দেশ করা হয়েছে। তাই কেউ যাকাত না দিলে তার নামাজ ও আদায় হবেনা।

হযরত আবু বকর (রা) এর খেলাফতকালে আরবের কিছু গোত্র যাকাত দিতে অসম্মতি জানিয়েছিল, যদিও তারা নামাজ পড়ত, ইহার জন্য হযরত আবু বকর (রা) তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলেন। যাকাত হচ্ছে নামাজের ন্যায় একটি মৌলিক ফরয ইবাদাত। বস্তুত যাকাত একদিকে যাকাত দাতার মন ও আত্মাকে পবিত্র ও পরিশুদ্ধ করে, তার ধন ও সম্পদকে পরিচ্ছন্ন ও পবিত্র করে। অপরদিকে দরিদ্রের অভাব পুরণে সহায়তা করে এবং সম্পদ বৃদ্ধির পথ সুগম করে দেয়।

যাকাত না দেয়ার পরিনামঃ– যাকাত ফরয হওয়া সত্তেও যদি কেউ তা আদায় না করে, তবে কঠোর আযাবের যোগ্য হবে। পবিত্র কোরআন ও হাদীসে যাকাত আদায় না করার ফলে ইহ ও পরকালীন বিভিন্ন আযাবের কথা সুস্পষ্ট ভাষায় বর্ণিত হয়েছে। যে লোক যাকাত আদায় করেনা, সে একজন মহাপাপী, ফাসেক ও ফাজের।

আর কেউ যদি যাকাতকে অস্বীকার করে এবং মনে করে বা বলে যে, যাকাত দেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। কে বলে যাকাত ফরয? এতে কোন ফায়দা নেই। অথবা বলে যে, যাকাত ফরয করে আমাদের উপার্জিত ধন সম্পদ কেড়ে নেয়ার একটি কৌশল করা হয়েছে ইত্যাদি। মোট কথা, যে সব কথার দ্বারা বুঝা যায় যে, সে যাকাত ফরয হওয়াকে অস্বীকার করছে কিংবা এর উপর খুবই অসন্তুষ্ট; তবে সে ব্যাক্তি কাফির হয়ে যাবে।

আল্লাহ আমাদের পরিপূর্ণভাবে যাকাত আদায় করে হালালভাবে সম্পদ ভোগ করার ও জীবন যাপন করার তাওফিক দান করুন।