হজ্জ কেন করবেন? হজ্জ এর বিধান কি?

হজ্জ এর বিধান কি?
হজ্জ এর বিধান কি?

পরিচিতিঃ– হজ্জ ইসলামের পাচটি ভিত্তির অন্যতম ভিত্তি। হজ্জ এর আভিধানিক অর্থ- ইচ্ছা বা সংকল্প করা। ইসলামের পরিভাষায় আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে হজ্জ এর নির্দিষ্ট স্থানসমুহে, নির্দিষ্ট নিয়মে বায়তুল্লাহ শরিফ ও সংশ্লিষ্ট স্থান সমুহে যিয়ারত এবং বিশেষ কার্যাদি সম্পাদন করাকে হজ্জ বলে।

হজ্জ এর গুরুত্বঃ– হজ্জ ইসলামের পাচটি স্তম্ভের একটি বিশেষ স্তম্ভ। এর ফরযিয়্যাত অকাট্য দলীলের ভিত্তিতে প্রমাণিত। এর ফরযিয়্যাত অস্বীকার করা কুফুরী। জীবনে একবার হজ্জ করা ফরয। বিশুদ্ধমতে হজ্জ ফরয হওয়ার পর বিলম্ব না করে আদায় করা অবশ্য কর্তব্য।

হজ্জ এর হাকীকত ও তাৎপর্যঃ– আল্লাহ তালা হাকীম ও প্রজ্ঞাময়। তার কোন কাজেই হিকমতহীন বা রহস্যহীন নয়। গবেষক আলিমগণ অনেকেই হজ্জ এর হাকীকত ও তাৎপর্যের কথা আলোচনা করে কিতাব লিখেছেন। বস্তুত হজ্জ এর মধ্যে মৌলিকভাবে দুটি বিষয়ই অধিক তাৎপর্যপুর্ণ। হজ্জ এর প্রতিটি আমলের মধ্যে এ দু’টি দৃশ্যের প্রকাশ সর্বত্র পরিলক্ষিত হয়। (১) হজ্জ আখিরাতের সফরের এক বিশেষ নিদর্শন। (২) হজ্জ আল্লাহর ইশক ও মুহাব্বাত প্রকাশের এক অনুপম বিধান।

হজ্জ এর উদ্দ্যেশ্যঃ– হজ্জ লা-শারীক আল্লাহর বান্দাদের এক আদম ও হাওয়া (আ) এর সন্তানদের বিশ্ব প্রতিপালক প্রদত্ত বিশ্ব মানবতার জীবন ব্যবস্থা। ইসলামের পতাকাতলে সমবেত মুসলিমদের আল্লাহর ইবাদত, দাসত্ব ও আনুগত্যের বহিঃপ্রকাশ। সমগ্র বিশ্বের মুসলিম উম্মাহের ঐক্যের অতুলনীয় এক মহাসম্মেলন। যেখানে সাদা-কালোর পার্থক্য ভুলে গিয়ে, পুর্ব-পশ্চিম, উত্তর-দক্ষিণের সীমারেখা তুলে দিয়ে সবাই এক আল্লাহর বান্দা ও এক রাসুলের উম্মত হিসেবে পরিচয় দিয়ে বিশ্ব জীবন বিধান আল কোরআনের পরিচালনায় বিশ্ব পালকের সন্তুষ্টি লাভের আশায় নিজেকে বিলীন করে দেয়ার এক অভুতপুর্ব দৃশ্য পরিলক্ষিত হয়।

যা শুধু স্রষ্টার উদ্দেশ্য ও ভালবাসা ও নিজেকে নিবেদনের। আল্লাহ আমাদের একবার অন্তত সহীহ তারীকায় সম্পুর্ণভাবে হজ্জ আদায়ের তাওফিক দান করুন।